Follow us

শুরু হচ্ছে ‘ওয়াও ঢাকা ২০১৯ ফেস্টিভ্যাল’

‘ওয়াও ঢাকা ২০১৯ ফেস্টিভ্যাল’

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ওয়াও- উইমেন অব দ্য ওয়ার্ল্ড ফেস্টিভ্যাল। যুক্তরাজ্যের ওয়াও ফাউন্ডেশনের অংশীদারিত্বে ব্রিটিশ কাউন্সিল আগামী ৫ ও ৬ এপ্রিল বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এ ফেস্টিভ্যাল আয়োজন করছে।

এ ফেস্টিভ্যাল উপলক্ষে আজ ব্রিটিশ কাউন্সিল মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে সংস্থাটি। সম্মেলনে প্যানেল আলোচকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডেপুটি ডিরেক্টর অ্যান্ড্রিউ নিউটন, হেড অব আর্টস নাহিন ইদ্রিস, মঙ্গলদীপের প্রতিষ্ঠাতা সারা যাকের, লিপিং বাউন্ডারিজের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সাগুফে হোসেন এবং বহ্নিশিখার প্রতিষ্ঠাতা তাশাফি হোসেন। সংবাদ সম্মেলন চলাকালীন প্যানেল আলোচকরা ওয়াও ফেস্টিভ্যাল নিয়ে ধারণা প্রদান করেন।

এ ফেস্টিভ্যালের গুরুত্ব নিয়ে ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডেপুটি ডিরেক্টর অ্যান্ড্রিউ নিউটন বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়ায় আর্টস প্রোগ্রাম পোর্টফোলিওর অধীনে নারী ও কিশোরীদের ক্ষমতায়নে আমাদের কাজের অগ্রগতির ক্ষেত্রে ওয়াও ফেস্টিভ্যাল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ব্রিটিশ কাউন্সিলে আমরা বিশ্বাস করি, অন্তর্ভুক্তিমূলক, উদার ও সম্ভাবনাময় সমাজ বিনির্মাণের পাশাপাশি, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার ৫ নম্বর লক্ষ্য ‘জেন্ডার সমতা ও নারীর ক্ষমতায়ন’ অর্জনের ক্ষেত্রে জেন্ডার সমতা অর্জন অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। সাংস্কৃতিক বোঝাপড়া শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের চর্চা ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করা এবং স্থানীয় প্রেক্ষিতে তা বাস্তবায়নের প্রভাবশালী মাধ্যম ওয়াও ফেস্টিভ্যাল। বিশ্বজুড়ে নারী ও কিশোরীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিতে, তাদের জন্য সুযোগ তৈরিতে এবং দক্ষতা ও আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধিতে তাদের সম্ভাবনা অর্জনে এবং জীবন পরিবর্তনকারী সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রভাব তৈরিতে পরামর্শক হিসেবে কাজ করে ওয়াও ফেস্টিভ্যাল।’

ওয়াও ঢাকার লক্ষ্যের ওপর গুরুত্ব দিয়ে ব্রিটিশ কাউন্সিলের হেড অব আর্টস নাহিন ইদ্রিস বলেন, ‘ওয়াও ঢাকার অন্তর্ভুক্তিমূলক জাতীয় প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে আমাদের প্রত্যাশা, এ শহর এবং এখানে যারা প্রতিদিন বাস করেন এবং কাজ করেন তাদের ওপর গুরুত্বারোপ করা। পাশাপাশি, ফেস্টিভ্যালে দর্শনার্থী বক্তা, প্যানেল আলোচক ও নারীদের অনুপ্রাণিত ও উৎসাহী করা হবে। আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে, নারী ও কিশোরীদের অর্জনগুলো উদযাপনের মাধ্যমে সকল মানুষের কাছে পৌঁছানো এবং নারীরা তাদের পূর্ণ সম্ভাবনা অর্জনের ক্ষেত্রে যে প্রতিকূলতার সম্মুখীন হয়েছেন এবং সফলভাবে সে সমস্যা সমাধান করেছেন, সহস্রাধিক নারীর সে গল্প তুলে ধরার মাধ্যমে অন্যদের অনুপ্রাণিত করা।’

জেন্ডার সমতা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে এবং সকল স্তরের নারী ও কিশোরীদের সাফল্য গাঁথা এবং তাদের জীবন সংগ্রামের ওপর গুরুত্ব দিয়ে কাজ করে ওয়াও প্ল্যাটফর্ম। বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে ওয়াও ফেস্টিভ্যাল স্থানীয় নারীদের সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে সকল নারীদের জন্য নতুন সুযোগ তৈরি করবে।

ওয়াও ঢাকা ফেস্টিভ্যালে জনসাধারণের সমষ্টিগত সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে এবং তাদের দৈনন্দিন দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনে আন্তঃসাংস্কৃতিক সংলাপে অংশ নেবে। ফেস্টিভ্যালে সামাজিক প্রথা, নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা, পুরুষ ও পুরুষত্ব এবং নারীবাদের মতো বিষয়ের ওপর প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। সমাজের বিভিন্ন স্তরের নারীদের বাস্তবতা, নিজেদের উন্নতির পথে তারা যে বাধা ও প্রতিকূলতার সম্মুখীন হয় এ বিষয়ের ওপর বিভিন্ন কর্মশালাও অনুষ্ঠিত হবে এ ফেস্টিভ্যালে। এছাড়াও, ফেস্টিভ্যালে ২০টি বিষয়ের ওপর সংক্ষিপ্ত আলোচনা, গল্প বলা সহ নানা বিভিন্ন নারীদলের পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হবে। এখানে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে সরাসরি প্রশিক্ষণ নেয়ার সুযোগ পাবেন ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহণকারীরা।

এছাড়াও, ফেস্টিভ্যালে জেন্ডার বিষয় নিয়ে তথ্য, নারী উদ্যোক্তাদের কাজের প্রদর্শনী ও তাদের পণ্য বিক্রির জন্য নির্বাচিত স্টল থাকবে। পাশাপাশি, দর্শকদের জন্য চিত্র প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, পারফর্মিং আর্টস ও পূর্ণাঙ্গ থিয়েটার প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।

ওয়াও ফেস্টিভ্যাল নারীদের জন্য বিশ্বের সর্ববৃহৎ ফেস্টিভ্যাল। ২০১০ সালে লন্ডনে এ ফেস্টিভ্যাল যাত্রা শুরু করে। এখন এটি একটি বৈশ্বিক ফেস্টিভ্যাল যা পাঁচটি মহাদেশে অনুষ্ঠিত হয়। ১৫ লাখের বেশি নারী ক্রমবর্ধমান ওয়াও মুভমেন্টের অংশ হচ্ছেন যেখানে পুরুষ ও কিশোররাও জেন্ডার ভারসাম্যতাপূর্ণ বিশ্বের অংশ হিসেবে উপকৃত হবে।

সাউথব্যাংক সেন্টারের সহায়তায় ওয়াও ফেস্টিভ্যাল আয়োজন করা হয়েছে।

গত বছর ব্রিটিশ কাউন্সিল রংপুর, সিলেট, খুলনা, রাজশাহী ও চট্টগ্রামে ওয়াও চ্যাপ্টারস- এর কয়েকটি অনুষ্ঠান আয়োজন করে। দেশের পাঁচটি বিভাগীয় শহরে ওয়াও চ্যাপ্টারস আয়োজনের সাফল্যের ধারাবাহিকতায় এবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে ওয়াও ঢাকা ফেস্টিভ্যাল। এর আগে অনুষ্ঠিত ওয়াও চ্যাপ্টারসে ২৫ হাজারের বেশি মানুষ অংশগ্রহণ করে। দক্ষিণ এশিয়ার কিশোরী ও নারীরা যেসব সমস্যা বা বাধার মুখোমুখি হন তা নিয়ে এবং পাশাপাশি তাদের নানা সফলতাকে উদযাপন করতে অনুষ্ঠিত হবে ‘ওয়াও ঢাকা ২০১৯’।

সবার জন্য উন্মুক্ত এ ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহণের জন্য ফেস্টিভ্যালের পূর্বেই নিবন্ধন করতে হবে। বিস্তারিত জানতে ও নিবন্ধন করতে ভিজিট করুন: www.britishcouncil.org.bd/en/wow-dhaka-2019-0

বিডি প্রেস রিলিস/ ০১ এপ্রিল ২০১৯/ এমএম


LATEST POSTS
কেনাকাটায় স্বাচ্ছন্দ্য দিতে ‘সারা’ দিচ্ছে ৫০% মূল্যছাড়

Posted on আগস্ট ১১th, ২০২২

ওয়ালটনের তৈরি সিসিটিভি সিস্টেমের পণ্যের উদ্বোধন

Posted on আগস্ট ৯th, ২০২২

বঙ্গমাতার জন্মদিনে ২৫০০ নারীর ‘উপায়’ অ্যাকাউন্টে প্রধানমন্ত্রীর উপহার

Posted on আগস্ট ৯th, ২০২২

দারাজের শপাম্যানিয়া ক্যাম্পেইনে ক্রেতাদের জন্য দারুণ সব ডিল

Posted on আগস্ট ৯th, ২০২২

ঢাকা-ব্যাংকক রুটে পুনরায় ফ্লাইট চালাবে ইউএস বাংলা

Posted on আগস্ট ৭th, ২০২২

জেক্সকা হেলথকেয়ার কমপ্লেক্সকে আইপিডিসি’র ৩ লাখ টাকার অনুদান

Posted on আগস্ট ৭th, ২০২২

‘অর্জন ও বিজয়োল্লাস’-এর বিজয়ী ডিএসওদের সম্মাননা প্রদান করল ‘নগদ’

Posted on আগস্ট ৭th, ২০২২

বাংলালিংকের আয় বেড়েছে

Posted on আগস্ট ৬th, ২০২২

ডাইকিন এসি নিয়ে বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করলো জিবিইএস এশিয়া

Posted on আগস্ট ৬th, ২০২২

ইস্কাটনে ডোমিনোজ পিৎজা’র ১১তম স্টোর উদ্বোধন

Posted on আগস্ট ৪th, ২০২২