Follow us

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও ভবিষ্যত পেশা বিষয়ক জাতীয় কর্মশালা অনুষ্ঠিত

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :: মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, ইউএসএইড এবং ইউএনডিপি’র সহায়তায় পরিচালিত এটুআই এবং জাতিসংঘের শিল্প উন্নয়ন সংস্থা (ইউএনআইডিও) এর যৌথ উদ্যোগে ৪ আগস্ট রাজধানী ঢাকার হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত হলো ‘ন্যাশনাল কনসালটেশন অন ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল এ্যান্ড ফিউচার অব ওয়ার্ক’।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপি এবং অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও ভবিষ্যত পেশা নিয়ে ‘ফিউচার স্কিলস: ফাইন্ডিং ইমার্জিং স্কিলস টু ট্যাকেল দি চ্যালেঞ্জেস অব অটোমেশন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক একটি গবেষণা প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় শিল্প মন্ত্রী জনাব নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপি বলেন, “আমরা মানবিক উন্নয়নের জন্য ফ্যাক্টরি তৈরি করব। প্রশাসনিক দায়িত্বে যারা আছেন, তারা প্রশাসনিক কাজ করেন আর আমরা মাঠে কাজ করছি।” প্রযুক্তিগত উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের চাকরি হারানোর কোনো আশঙ্কা নিয়ে বিচলিত না হওয়ার পরামর্শ দেন শিল্প মন্ত্রী।

অতিথি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি বলেন, “কস্ট বেনিফিট অ্যানালাইসিস করার সময় এসেছে। আমাদের রিসোর্সগুলো ছড়িয়ে দেওয়া এবং পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়ন করার এখন সময় এসেছে। কিন্তু বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনার ক্ষেত্রে আমরা কিছু প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হচ্ছি। এ জন্য চাহিদামাফিক মানবসম্পদ তৈরির ক্ষেত্রে ইন্ডাস্ট্রি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। সেখানে ইন্ড্রাস্টি আগে থেকে তাদের দক্ষতাভিত্তিক চাহিদাগুলো জানাবে।”

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘অটোমেশন হলে সব কর্মীরই চাকরি যাবে, ব্যাপারটা এমন নয়। কিছু মানুষ ঝুঁকিতে পড়বে ঠিক, কিন্তু সেই আশঙ্কাকে দূর করতে আমাদের দক্ষ কর্মী হয়ে উঠতে হবে।’

এটুআই-এর পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরীর সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (এনএসডিএ) নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব) ফারুক হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, ইউএনআইডিও-এর রিজিওনাল রিপ্রেজেন্টেটিভ ভ্যান বার্কেল রেনে, মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) সভাপতি নিহাদ কবির এবং আইএলও এর প্রধান কারিগরি উপদেষ্টা কিশোর কুমার সিং।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইউএনআইডিও-এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ ইন বাংলাদেশ জনাব জাকি-উজ-জামান পিএইচডি। এছাড়া সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ও মিডিয়া কর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

বিডি প্রেসরিলিস / ৬ আগস্ট ২০১৯/এমএম